শিখে নিই

চারিত্রিক সনদপত্র PDF Download ডাউনলোড

আপনারা যারা চারিত্রিক সনদপত্র ডাউনলোড করতে চান তারা আমাদের ওয়েবসাইট থেকে ডাউনলোড করতে পারবেন। চারিত্রিক সনদপত্র ডাউনলোড করার পাশাপাশি একইভাবে চারিত্রিক সনদপত্র কিভাবে তৈরি করতে হয় সে বিষয়ে বিস্তারিত আলোচনা করা আছে।

আপনারা তাই ধৈর্য সহকারে আমাদের এই পোস্টটি পড়ুন। তাহলে সহজেই বুঝতে পারবেন কিভাবে চারিত্রিক সনদপত্র তৈরি করা যায়। তার আগে আপনাদের জানতে হবে, চারিত্রিক সনদপত্র কি?

চারিত্রিক সনদপত্র কি

চারিত্রিক সনদপত্র হলো এমন একটি লিখিত প্রমাণ যার মাধ্যমে আপনি একজন ভালো, সৎ এবং সক্রিয় হিসেবে বিবেচিত হবেন। অর্থাৎ আপনার ভালো গুণগুলো চারিত্রিক সনদপত্র এ উল্লেখ করা থাকবে। যদিও একজন খারাপ ব্যক্তির ক্ষেত্রেও একই তথ্য ব্যবহার করা হয়।

তারপরও প্রত্যেকটি মানুষের সুন্দর পরিচয় দেওয়ার জন্য চারিত্রিক সনদপত্র ব্যবহার করা হয়। এই চারিত্রিক সনদ এর ক্ষেত্রের প্রয়োজনীয়তা অনেক। ব্যক্তিজীবনে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের চারিত্রিক সনদপত্র প্রয়োজন হয়। সেটা স্কুল বা কলেজ হোক বা কোন চাকরিতে জয়েন করার জন্য হোক।

তাই যারা চারিত্রিক সনদপত্র সম্পর্কে জানেন না তার এই প্রশ্নের মধ্য দিয়ে জেনে নিন। আর আমাদের ওয়েবসাইটে চারিত্রিক সনদ পত্রের ফরমেট দেওয়া আছে। আপনারা সেই ফরমাট টি ডাউনলোড করে নিন। আর নিজেরাই চারিত্রিক সনদপত্র সহজে তৈরি করে নিতে পারবেন।

নিজের চারিত্রিক সনদপত্র নিজেই তৈরি করুন খুব সহজেই

আমাদের ব্যক্তিজীবনে চলাফেরার জন্য চারিত্রিক সনদপত্র খুবই গুরুত্বপূর্ণ একটি কাগজ। তবে বর্তমানে এই সনদ এর প্রয়োজনীয়তা বেড়ে যাওয়ায় বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান অসদুপায় অবলম্বন করছে। অর্থাৎ চারিত্রিক সনদপত্র টাকার বিনিময়ে প্রদান করছে। যদিও সকল ব্যক্তির ক্ষেত্রে চারিত্রিক সনদপত্রের একজন মানুষের সুন্দর গুণগুলো তুলে ধরা হয়।

তার জন্য বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান টাকা-পয়সা চেয়ে থাকে। সে ক্ষেত্রে আপনাদের প্রতারণার শিকার হওয়ার কোন দরকার নেই। কোনো ব্যাক্তি যদি আপনাদের থেকে এই চারিত্রিক সনদপত্র বিষয়ে টাকা চায়, তাহলে তাকে এড়িয়ে চলবেন। আপনারা আমাদের ওয়েবসাইটে দেওয়া চারিত্রিক সনদপত্র ফরমেটটি ডাউনলোড করে নিন।

আর নিজেরাই চারিত্রিক সনদপত্র তৈরি করেন। সেক্ষেত্রে আপনাদের শুধু আপনাদের এলাকার চেয়ারম্যান বা কাউন্সিলের থেকে স্বাক্ষর করে নিলেই হবে। আবার অনেকে ভাবতে পারেন যে চারিত্রিক সনদপত্র কি তথ্য লাগবে? সেজন্য তাদের উদ্দেশ্যে বলছি, চারিত্রিক সনদপত্র কোন তথ্য দেওয়া লাগবে না। সেখানে আপনার নাম, পিতার নাম, মাতার নাম, আপনার বসবাসরত এলাকার ওয়ার্ড নাম্বার ইত্যাদি উল্লেখ থাকবে।

তার সাথে আপনার কোন ধরনের রাষ্ট্রদ্রোহীদের সঙ্গে জড়িত নন এবং রাষ্ট্রের সকল কাজের সাথে সক্রিয় ভূমিকা পালন করেন সেই তথ্যগুলো দেয়া থাকবে। অর্থাৎ আপনার ভালো গুণগুলো সেখানে তুলে দেওয়া থাকবে। তাই চারিত্রিক সনদপত্র জন্য চিন্তা করা লাগবে না। সেজন্য আপনি কেন অন্য লোককে টাকা পয়সা খরচ করে চারিত্রিক সনদপত্র দিতে যাবেন?

যেভাবে চারিত্রিক সনদপত্র পিডিএফ ফাইল ডাউনলোড করবেন

আমাদের ওয়েবসাইটে চারিত্রিক সনদপত্রের একটি পিডিএফ ফাইল দেয়া আছে। আপনারা সম্পূর্ণ বিনামূল্যে খুব সহজে এ ক্লিক এর মধ্য দিয়ে চারিত্রিক সনদপত্র পিডিএফ ফাইলটি ডাউনলোড করে নিন। এ পিডিএফ ফাইল ডাউনলোড করে নিন আপনার কম্পিউটার বা ল্যাপটপে তথ্য গুলো পূরণ করতে পারবেন।

আর সেই তথ্য পূরণ করা পূর্ণ কাগজটি আপনারা প্রিন্টার এর মধ্য দিয়ে প্রিন্ট করে নিন। তাহলে আপনারা চারিত্রিক সনদপত্র নিজেরাই ঘরে বসে পেয়ে যাচ্ছেন। এ ক্ষেত্রে আপনাদের আরেকটি জিনিস লাগবে সেটা হল আপনার এলাকার চেয়ারম্যান অথবা কাউন্সিলর স্বাক্ষর। কারণ এটি গুরুত্বপূর্ণ।

তার কারণ হলো আপনার এলাকার চেয়ারম্যান একজন গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তি ব্যক্তিগতভাবে তিনি আপনাকে চেনার স্বার্থে আপনি কেমন ধরনের মানুষ তার সাক্ষ্য দেওয়ার জন্যই তার স্বাক্ষর নিতে হবে। এটি একটি সরকারি নিয়ম। তাই এক্ষেত্রে আপনাকে স্বাক্ষর নিতে হবে। অন্যথায় আপনার চারিত্রিক সনদপত্রটি সঠিক বলে বিবেচিত হবে না।

চারিত্রিক সনদপত্র কত প্রকার এবং কি কি

চারিত্রিক সনদপত্র সাধারনত দুই ধরনের হয়ে থাকে। তবে আমরা যে ধরনের চারিত্রিক সনদপত্র ব্যবহার করি তা হলো বাংলা মাধ্যমের। তবে ইংরেজি চারিত্রিক সনদপত্র হয়ে থাকে। তবে যে সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে চাকরি প্রতিষ্ঠানগুলো চারিত্রিক সনদপত্র চাই সেক্ষেত্রে বাংলা মাধ্যমে চাওয়া হয়।

এক্ষেত্রে আপনাদের বিরম্বনা হওয়ার কোন দরকার নেই। যে কারণে সনদ দরকার লাগুক না কেন, আপনার সুন্দর ভাবে এবং নির্ভুল ভাবে সে তথ্য গুলো পূরণ করে নিয়ে আপনার নিকটস্থ চেয়ারম্যানের কাছ থেকে স্বাক্ষর করে নিবেন।

প্রথম শ্রেণীর গেজেটেড কর্মকর্তা কর্তৃক চারিত্রিক সনদপত্র

আপনারা হয়তো ভাবছেন চারিত্রিক সনদপত্র পাওয়াটা অনেক ঝামেলার। অনেক ক্ষেত্রে প্রথম শ্রেণীর গেজেটেড কর্মকর্তা দ্বারা চারিত্রিক সনদপত্র সত্যায়িত করতে হয়। তার জন্য আপনারা ভাবেন এটা একটি অনেক ঝামেলার কাজ। কিন্তু লক্ষ্য করলে দেখবেন যে আপনার আশেপাশেই প্রথম শ্রেণীর গেজেটেড কর্মকর্তা রয়েছে।

হয়তো আপনার বাড়ির পাশের সরকারি কলেজের কোন শিক্ষক এর থেকে চারিত্রিক সনদপত্র স্বাক্ষর করে নিতে পারেন। অথবা যদি করতে সমাধান না পারেন তাহলে আপনার নিকটস্থ হাসপাতালে গিয়ে সরকারি ডাক্তারের থেকে চাকরি সম্পদের সত্যায়িত করে নিতে পারবেন।

এক্ষেত্রে আপনাকে আগে থেকে কাগজ তৈরি করে নিয়ে যেতে হবে। কারণ ডাক্তারের বা প্রথম শ্রেণীর গেজেটেড কর্মকর্তাদের কর্মব্যস্ততা অনেক বেশি। আর এভাবে আপনারা প্রথম শ্রেণীর গেজেটেড কর্মকর্তার থেকে চারিত্রিক সনদপত্র সত্যায়িত বা স্বাক্ষর করে নিন।

কলেজে চারিত্রিক সনদপত্র

আপনি হয়তো একটি কলেজে পড়ছেন। সে কলেজ থেকে উত্তীর্ণ হয়ে আরেকটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ভর্তি হবেন। তার জন্য আপনাকে চারিত্রিক সনদপত্র প্রয়োজন হবে। অবশ্য শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ভাষায় এটাকে বলা হয় প্রশংসাপত্র। তবে চারিত্রিক সনদপত্র এবং প্রশংসা পত্রের মধ্যে গত কোন ধরনের পার্থক্য নে।ই দুই ধরনের সনদপত্র একই।

আপনার ভাল গুণের কথা উল্লেখ করা থাকবে দুই সনদেই। অর্থাৎ আপনি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে ভাল কাজের সাথে জড়িত ছিলেন এবং সক্রিয় ভূমিকা পালন করেছেন এই কথাগুলোর লেখা থাকবে। অবশ্য এই তথ্যগুলো চারিত্রিক সনদপত্রেও করা থাকে।

তাই আপনারা যারা কলেজ থেকে চারিত্রিক সনদপত্র পেতে যাচ্ছেন। তারা নির্দিষ্ট কর্মকর্তাকে দরখাস্তের মাধ্যমে আহ্বান করতে হবে। তিনি আপনাকে যথাসময়ে চারিত্রিক সনদপত্র আপনার তথ্য সঠিকভাবে পূরণ করে দিয়ে দিবে। আবার অনেক শিক্ষা প্রতিষ্ঠান দরখাস্ত করা লাগেনা।

চারিত্রিক সনদপত্র অনলাইন

উপরে চারিত্রিক সনদপত্র যেভাবে আলোচনা করলাম তার মাধ্যম দিয়ে আপনারা অনলাইনে চারিত্রিক সনদপত্র পেয়ে যাবেন। সে ক্ষেত্রে আপনারা কিভাবে চারিত্রিক সনদপত্র পাবেন? আমাদের ওয়েবসাইট এই চারিত্রিক সনদপত্র ফরমেট দেওয়া আছে। এই ফরমেটটি আপনারা ডাউনলোড করে নিতে পারেন ডক ফাইল এর মাধ্যমে।

আপনারা ডক ফাইল এ গিয়ে চারিত্রিক সনদপত্র ডাউনলোড করে নিয়ে, সেখানে নির্ভুলভাবে তথ্য গুলো পূরণ করবেন। আর এভাবেই সুন্দর করে আপনারা তথ্য গুলো পূরণ করলে আপনাদের চারিত্রিক সনদপত্র তৈরি হয়ে যাচ্ছে।

তারপরে আপনারা উপরে দেওয়া উল্লেখিত তথ্যমতে নিকটস্থ চেয়ারম্যান বা প্রথম শ্রেণীর গেজেটেড কর্মকর্তার থেকে স্বাক্ষর করে নেবেন। তাহলে আপনার অনলাইনের মাধ্যমে চারিত্রিক সনদপত্র পাওয়াটা খুবই সহজ উপায় হবে।

চারিত্রিক সনদপত্র ইংরেজি

চারিত্রিক সনদপত্র ইংরেজি খুব একটা ব্যবহার করা হয় না। বেশির ভাগ ক্ষেত্রেই বাংলা চারিত্রিক সনদ এর ব্যবহার করা হয়। তবে যে সকল ক্ষেত্রে ইংরেজিতে সন্দ ব্যবহার করা হয় সে ক্ষেত্রে আপনারা ইংরেজি তথ্য ব্যবহার করবেন। সেখানে আলাদা কোনো তথ্য তাদের সংযুক্ত করতে হবে না।

তার জন্য আপনারা একইভাবে বাংলার মত ইংরেজি চারিত্রিক সনদপত্র তথ্য পূরণ করবেন। আর এভাবে আপনারা চাইলে সনদপত্র ইংরেজি খুব সহজে পূরণ করতে পারবেন।

তাই চারিত্রিক সনদ সংক্রান্ত যে তথ্য উপরে দেওয়া আছে এই তথ্য গুলো যদি আপনাদের ভালো লাগে তাহলে অবশ্যই আমাদের জানাবেন আর যদি কেউ বুঝতে না পারেন তাহলে আমাদের ওয়েবসাইটের কমেন্ট বক্সে জানাবেন। আমরা তাহলে আপনাদের সমস্যার সমাধান করে দেব।

চারিত্রিক সনদপত্র সংক্রান্ত পোস্ট সংক্রান্ত কোনো প্রশ্ন থেকে থাকে তাহলে অবশ্যই জানাবেন। তাছাড়া বিভিন্ন ধরনের দরখাস্ত, প্রত্যয়ণপত্রসহ, বিভিন্ন অফিশিয়াল কাগজপত্র সংক্রান্ত তথ্য আমাদের ওয়েবসাইটে আপনারা পাবেন।

Back to top button
Close